ফজরের নামাজের সময় কখন শুরু এবং শেষ হয়?

ফজররের নামাজের সময় ও নিয়ম প্রতিটি মুসলিমের জন্য জানা অতীত প্রয়োজনীয়। ফজরের নামাজ দিয়েই একজন মুসলিমের দিন শুরু হয় ও এই নামাজের রয়েছে অনেক ফজিলত। ফজরের নামাজের সময় সম্পর্কে কোরআন এবং হাদিসের আলোকে এখানে আলোচনা করা হলো।

ফজরের নামাজ সম্পর্কে বিস্তারিত।

ফজরের নামাজের সময়
ফজরের নামাজের সময়

নামাজ প্রতিটি প্রাপ্তবয়স্ক মুসলিম নর-নারীর উপর ফরজ। ইসলামের মূল পাচটি স্তম্ভের মধ্যে প্রথমেই রয়েছে নামাজ। আর একজন মানুষের উপর দৈনিক পাচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ যার প্রথমটিই হলো ফজর।

ফজরের নামাজ সুর্য ওঠার পুর্বেই পড়ে নিতে হয়। আর একারনে এই নামাজ আরো বেশি ফজিলত পূর্ন। আল্লাহ তায়ালা আল কোর-আনে বলেছেন- “নিশ্চয়ই নামাজ যাবতীয় অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে“। এর অর্থ হলো কোন মুসলিম ব্যক্তি দৈনিক পাচ ওয়াক্ত (পাচ বার) নামাজ আদায় করলে সে যাবতীয় খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকতে পারবে।

আল কোরআনের সুরা নূরের ২৪ নং আয়াতে ফজরের নামাজ সম্পর্কে বলা হয়েছে। ফজরের নামাজে রয়েছে দুই রাকাত সুন্নাত ও দুই রাকাত ফরজ নামাজ। দুই রাকাত সুন্নাত নামাজের পর জামায়াতের সাথে দুই রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করতে হয়। সুবহে সাদিকের পর থেকে সুর্যাস্ত পর্যন্ত ফজরের নামাজ পড়া যায়।

ফজরের নামাজের সময় কখন শুরু হয়?

ফজরের নামাজ শুরু হয় সুবহে সাদিকের পর থেকে। আর সুবহে সাদিক ধরা হয় যখম সুর্য দিগন্তের ১৮ ডিগ্রি নিচে থাকে। কিন্তু এই ডিগ্রি কোরান বা হাদিসের উল্লেখ্য বিষয় নয়। কোরআন এবং হাদিসে কেবল মাত্র সুবহে সাদিকের আলামতে কথা উল্লেখ করা হয়েছে আর সেই আলামত অনুযায়ী মুসলিম বিজ্ঞানিগন এই সময় নির্ধারণ করেছেন।

পশ্চিম আকাশে লম্বা সাদা আভা দেখা গেলে তখন তাকে বলা হয় সুবহে কাযিব আর এর কিছুক্ষণ পর যখন পশ্চিম আকাশে পুনরায় আড়াআড়ি ভাবে বড় আকারে সাদা আভা প্রকাশ পায় সেটি হলো সুবহে সাদিক। আর এই সুবহে সাদিক থেকেই ফজরের নামাজের সময় বা ওয়াক্ত শুরু হয়। কিন্তু এটি পর্যবেক্ষণের জন্য অবশ্যই মেঘমুক্ত পরিষ্কার আকাশ প্রয়োজন এবং হঠাৎ একদিন পর্যবেক্ষণ করেই কোন সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না। কেননা বিষয়টি অতি সুক্ষ্ম ও সকলের জ্ঞানের বাইরে।

যেহেতু এই সুবহে সাদিকের বিষয়টি পুরোটাই মহাকাশ বিজ্ঞান ও জ্যোতির্বিদ্যা বিষয় তাই আমাদের মতো সাধারণ মানুষের পক্ষে সুবহে সাদিক বা আসলাম দেখে ফজরের নামাজের সময় নির্ধারণ করা অনেক কষ্টকর ও সেখানে ভূল হবার সম্ভাবনাও থাকে অনেক বেশি আর সেকারণেই ইসলামিক বিশেষজ্ঞ প্রদত্ত সময় সূচি অনুযায়ী নামাজ আদায় করায় উত্তম।

এই মাসয়ালা টি তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা এর পরিচালক লুৎফুর রহমান ফরায়েজী হুজুরের নিকট হতে নেয়া।

আর সূর্য ওঠার সাথে সাথেই ফজরের নামাজ এর সময় শেষ হয়ে যায়। এবং সূর্য ওঠার পর আর ফজরের নামাজ পড়া যায় না। যদি কোন কারনে নামাজ পড়তে দেরি হয়ে যায় সেক্ষেত্রে সূর্য উদয় শেষ হবার পর কাজা নামাজ আদায় করে নিতে হবে। কেননা সুর্য দয় ও সূর্যাস্তের সময় নামাজ আদায় করা হারাম।

আপনার অবস্থান অনুযায়ী পাচ ওয়াক্ত নামাজের সময় সুচি সম্পর্কে জানার জন্য এই এন্ড্রয়েড অ্যাপ টি ব্যবহার করতে পারেন।

শেষকথা

আপনি যদি পুরো আর্টিকেল টি ভালোভাবে পড়েন তাহলে আপনার ফজরের নামাজের সময় কখন শুরু এবং শেষ বিষয়ে আর কোন কিছু জানার বাকি থাকবে না। এর পরেও কোথাও বুঝতে সমস্যা হলে অথবা কিছু জানার থাকলে সেটি অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমি চেষ্টা করব সেই বিষয়ের সমাধান করার জন্য।

ফেসবুকে আমি- Penmanbd Facebook Page

Share:

5 thoughts on “ফজরের নামাজের সময় কখন শুরু এবং শেষ হয়?”

  1. Assalamualikum.fazar er namaz sesh howar por jdi dkhi akash ekdm e clear kono ondhokar nai r mne hcche shujo otha shuru hoye gche…kintu phone e check kore dkhte pai surjodoy er aro 5/6 minute bki…ei obsthai ki salat hbe?nki abr aday krte hbe?plzz taratri reply dle upokrito hbo insha’Allah

    Reply

Leave a Comment